রুকইয়া শোনার চেয়ে তিলাওয়াত করা উত্তম

এই গ্রুপে অনেক সময় প্রেস্ক্রিপশন হিসেবে অথবা সমস্যা যাচাইয়ের জন্য আপনাদেরকে রুকইয়ার আয়াত শুনতে বলা হয়। এডমিন ভাইয়েরা বলে থাকেন – “অমুক শাইখের রুকইয়াহ শুনবেন ২বার।”
এটাও ভালো, কিন্তু আপনি যদি একটু ধৈর্য ধরে নিজে তিলাওয়াত করেন, তাহলে সেটা সবচেয়ে উত্তম হবে।

সত্যি বলতে এই দেখে দেখে / মুখস্ত তিলাওয়াত করাটাই আসল রুকইয়াহ। অডিও হল একটা দূর্বল বিকল্প। কারণ আমরা সবসময় তিলাওয়াত করতে পারি না। (বইয়ে এটা বিস্তারিত ব্যখ্যা করেছি)

যাহোক, তিলাওয়াতের ক্ষেত্রে আপনি যদি অডিও শোনার অর্ধেক সময়ও তিলাওয়াত করেন (যেমন আপনাকে ৩ঘন্টা রুকইয়া শুনতে বলা হয়েছে, সেখানে আপনি যদি দেড় ঘন্টা অথবা আরও কম তিলাওয়াত করলেন) এটা ওই দীর্ঘ সময় শোনার তিলাওয়াত শোনার চেয়ে বেশি উপকারী। আপনি চাইলে দেড় ঘন্টাকে দিনের মাঝে ২-৩ভাগ করে নিতে পারেন। অথবা আধাঘণ্টা তিলাওয়াত করলেন, বাকি সময় শুনলেন। এটাও ভালো…

রুকইয়ার আয়াতগুলো “রুকইয়াহ” (আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ) বইয়ের শেষে যুক্ত করা আছে, সেটা দেখে দেখে পড়তে পারেন। এছাড়া পিডিএফ পাবেন এই লিংকে- https://ruqyahbd.org/pdf

—-
নিজে রুকইয়াহ সম্পর্কে জানুন, অন্যের সাথে শেয়ার করুন।
একটি সুন্নাহর পুনর্জাগরণে অবদান রাখুন…

Leave a Reply

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।