হাড়ক্ষয় রোগের জন্য রুকইয়াহ

আয়াতে ইযাম হাড়ক্ষয় রোগের চিকিৎসায় বিশেষভাবে উপকারী।
ইযা-ম عظام হল عظم এর বহুবচন, যার অর্থ “হাড়”(bone)। কোরআন এর যে আয়াতগুলোতে হাড় শব্দ আছে, এটা হলো সেসবের সংকলন।

এরকম আয়াতগুলো হচ্ছে –
১। সুরা বাকারা ২৫৯
২। সুরা বনী ইসরাঈল ৪৯, ৯৮
৩। সূরা মারইয়াম ৪
৪। সূরা মু’মিনুন ১৪, ৩৫, ৮২
৫। সূরা ইয়াসিন ৭৮-৭৯
৬। সুরা সফফাত ১৬, ৫৩
৭। সূরা ওয়াক্বিয়াহ ৪৭
৮। সূরা ক্বিয়ামাহ ৩, ৪
৯। সূরা নাযিয়াত ১১

পিডিএফ ডাউনলোডঃ

১০। আয়াতে ইযাম - পিডিএফ

সাইজ: ১৭৭কেবি

উল্লেখ্য, এখানে বলা সবগুলো আয়াত পড়তে না চাইলে অল্প কিছু (যেমন শুধু সুরা ইয়াসিন ৭৮-৭৯ এবং সুরা ক্বিয়ামাহ’র ৩-৪) আয়াত পড়ে রুকইয়াহ করা যেতে পারে।

হাড়ক্ষয় সমস্যার জন্য রুকইয়ার নিয়ম হলো, পিডিএফএ উল্লেখিত আয়াতগুলো পড়ে আক্রান্ত স্থানে সরাসরি ফুঁ দেয়া অথবা/এবং হাতের তালুতে ফুঁ দিয়ে আক্রান্ত স্থানে হাত বুলিয়ে নেয়া। সুস্থ হওয়া পর্যন্ত প্রতিদিন কয়েকবার এই নিয়মে রুকইয়াহ করতে থাকা। (পাশাপাশি হিজামা করা যেতে পারে, হাড়ক্ষয়ের চিকিৎসায় হিজামা থেরাপি অনেক উপকারী)

[দ্রষ্টব্যঃ আপাতত বড় বড় ফন্টে A5 সাইজের পেইজে পিডিএফ করা হয়েছে, চাইলে এটা প্রিন্ট করে পড়া যাবে। যদি কারও প্রয়োজন হয় তবে A4 সাইজের পেইজ করে দিব ইনশাআল্লাহ।
আর অবশ্যই আপনাদের রুকইয়াহ করার অভিজ্ঞতা জানাবেন।]

আল্লাহ আমাদের সুস্থতা দান করুক, আমিন

Leave a Reply

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

ninety six − = eighty nine