রুকইয়াহ শিরকিয়্যাহ!

আজকাল কবিরাজ নামের ভণ্ড যাদুকররাও বলছে “রুকইয়া করি”

শয়তানি আগেরগুলোই আছে, শুধু নাম দিচ্ছে রুকইয়া!

গতকাল একজনের খবর পেলাম উনাকে বলেছে রুকইয়া করবে, পরে- উনার নাম আর মায়ের না জিজ্ঞেস করেছে। মায়ের নাম জিজ্ঞেস করার কারন হচ্ছে, শয়তানী যাদু করবে তাই কবিরাজরা বাপের পরিচয় স্বীকার করতে চায় না।

এক ফেসবুক পেইজে দেখলাম রুকইয়া করার নামে প্রেমভালবাসার তাবিজ বিক্রি চলছে!! রিলেশন ব্রেকআপ হওয়া ছেলেমেয়েরা ভিড় জমাচ্ছে কুফরি করার জন্য।

কিন্তু এই কুফরি করছে রুকইয়ার নাম দিয়ে।

হ্যাঁ! এসব (শাব্দিক অর্থে) রুকইয়া তো বটে! কিন্তু সেটা হল জাহেলী জামানার কুফরি-শিরকি রুকইয়াহ!

সহজ ট্রিক শিখিয়ে দেই, যে লোক তাবিজ লেখবে, তাবিজ ভেঙে ওর সামনে গিয়ে খুলবেন, জিজ্ঞেস করবেন – পড়েন কি লেখেছেন, এই তাবিজে কয়জন শয়তানের নামের যিকর করছেন বলেন।

শয়তান পূজারি যাদুকর চেনার সহজ উপায় হচ্ছে, চিকিৎসা করতে গেলে আপনার কাপড় চাইবে, অথবা আপনার কোন অংশ (যেমন চুল চাইবে)। আর আপনার নাম এবং মায়ের নাম জিজ্ঞেস করবে।

Leave a Reply

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।