চোখের সমস্যার জন্য রুকইয়াহ

চোখের সমস্যায় সুরা ক্বফ ২২নং আয়াতের শেষাংশ বেশ উপকারী। এর সাথে সূরা ফাতিহা। আয়াতের অংশটি হচ্ছে- فَكَشَفْنَا عَنْكَ غِطَاءَكَ فَبَصَرُكَ الْيَوْمَ حَدِيْدٌ অনুবাদঃ আমি তোমার থেকে পর্দা সরিয়ে দিয়েছি, তাই আজ তোমার দৃষ্টি হয়েছে প্রখর। (সূরা ক্বফ ২২)     কিভাবে এই আয়াত দিয়ে রুকইয়া করবেন? নামাজ শেষ করার পর সূরা ফাতিহা এবং এই আয়াতটি […]

হাড়ক্ষয় রোগের জন্য রুকইয়াহ

আয়াতে ইযাম হাড়ক্ষয় রোগের চিকিৎসায় বিশেষভাবে উপকারী। ইযা-ম عظام হল عظم এর বহুবচন, যার অর্থ “হাড়”(bone)। কোরআন এর যে আয়াতগুলোতে হাড় শব্দ আছে, এটা হলো সেসবের সংকলন। এরকম আয়াতগুলো হচ্ছে – ১। সুরা বাকারা ২৫৯ ২। সুরা বনী ইসরাঈল ৪৯, ৯৮ ৩। সূরা মারইয়াম ৪ ৪। সূরা মু’মিনুন ১৪, ৩৫, ৮২ ৫। সূরা ইয়াসিন ৭৮-৭৯ […]

গর্ভাবস্থায় কী দোয়া পড়বেন?

অনেকে জানতে চেয়েছেন, গর্ভাবস্থায় কী দুয়া পড়া যায়? অথবা নেক সন্তানের জন্যে কী দুয়া করা যায়? সন্তান লাভ করা ইসলামের দৃষ্টিতে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। রাসূল সা. উম্মাহর সংখ্যাগরিষ্ঠতা পছন্দ করেছে। বর্তমান প্রকৃত মুসলিমদের যে শোচনীয় অবস্থা, এ প্রেক্ষিতে অধিক হারে সন্তান নেয়া মুসলিম পরিবারের কর্তব্য। এখানে অবহেলা করার সুযোগ নেই। “সবে বিয়ে হয়েছে, এখন সন্তান নিলে […]

রুকইয়াহ শারইয়াহঃ পরিচিতি

সবচেয়ে বড় এবং প্রথম প্রশ্ন হচ্ছে, রুকইয়াহ কি?  ১)  শাব্দিক অর্থে রুকইয়াহ মানে হল, ঝাড়ফুঁক, মন্ত্র, তাবিজ কবচ ইত্যাদি।  ২) তবে ব্যবহারিক অর্থে রুকইয়াহ বলতে সাধারণত ঝাড়ফুঁকই বুঝায়। ৩ ) রুকইয়ার পারিভাষিক অর্থ হচ্ছে, কোরআনের আয়াত, আল্লাহর নামের যিকর, হাদিসে রাসূল ﷺ অথবা সালাফে সালেহীন থেকে বর্ণিত দোয়া পাঠ করার মাধ্যমে আল্লাহর কাছে কোন বিপদ […]

রুকইয়াহ এবং রেফারেন্স

“রুকইয়াহ” একটা চিকিৎসা পদ্ধতি, এই পদ্ধতিতে চিকিৎসার ক্ষেত্রে শরিয়তের নির্ধারিত সীমা লঙ্ঘন না হলেই এটা জায়েজ। এজন্য প্রতিটা প্রেসক্রিপশনের সাথে সাথে রেফারেন্স দিতে হবে এটার প্রয়োজন নাই। রুকইয়ার ক্ষেত্রে সাধারণ মূলনীতি হল – কোন হারাম বা শিরকি বিষয় থাকা যাবে না। কোন অস্পষ্ট বিষয় থাকা যাবে না। প্রসিদ্ধ হাদিসগুলোতে সাহাবাদের থেকে কোরআন এর যেসব সুরা […]

শিরকি রুকইয়াহ থেকেও উপকার হয় কেন? খ্রিষ্টান যাজকরা কিভাবে ঝাড়ফুঁক করে?

আসসালামু আলাইকুম। মুসলিমরা কুর’আনের সাহায্যে জ্বীন, ভূত ছাড়ায় যেটা আল্লাহর কালাম। তাই জ্বীন ভূত ভিক্টিমকে ছেড়ে চলে যায়। কিন্তু অন্যান্যধর্মের ধর্মগুরুরা কিভাবে বাইবেল, গীতা পড়ে ভূত ছাড়াতে পারে? যেখানে এই বইগুলো নিজেই গভীর শির্কে পরিপূর্ণ সেগুলো কিভাবে শয়তানের বিরুদ্ধে অস্ত্র হতে পারে? উত্তর: ওয়ালাইকুমুসসালাম “…আওফ ইবনু মালিক আশজাঈ রা. থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমরা জাহেলী […]